হোয়াইটওয়াশ এড়াতে জয় চায় বাংলাদেশ

ক্রিকেট খেলাধুলা

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে আজ বিকালে মাঠে নামবে টাইগাররা। কলম্বোর আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল তিনটায়।

এই সিরিজে খেলছেন না বাংলাদেশের ‘পঞ্চপাণ্ডবের’ দুই পাণ্ডব। তারা দুজন হলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ও সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। সিরিজে মাশরাফি-সাকিব না থাকার অভাব ভালোভাবেই বোধ করছে বাংলাদেশ দল।

মাশরাফি হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে শ্রীলঙ্কায় যাওয়ার আগের রাতে দল থেকে ছিটকে যান। শুধু মাশরাফিই নন, একই দিন পিঠের ইনজুরির কারণে দল থেকে বাদ পড়েন অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। আর সাকিব আল হাসান এবং লিটন দাস আগে থেকেই ছুটি নিয়েছিলেন। এই সিরিজে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তামিম ইকবাল।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ৪৭টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ জিতেছে সাতটিতে। শ্রীলঙ্কা জিতেছে ৩৮টিতে। বাকি দুইটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। গত বিশ্বকাপে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়েছিল।

২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়ে তিন ফরম্যাটের সিরিজের তিনটিই ড্র করেছিল বাংলাদেশ। আর ২০১৮ সালের মার্চে শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশ রানার্স আপ হয়েছিল। কিন্তু এবার কঠিন পরীক্ষায় বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে একাই লড়াই করেছিলেন সাকিব আল হাসান। আর শ্রীলঙ্কা সফরে দলের হয়ে একাই লড়ে যাচ্ছেন মুশফিকুর রহিম। প্রথম ম্যাচে ৬৭ রান করার পর দ্বিতীয় ম্যাচে ৯৮ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

গত দুই ম্যাচে ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন বিভাগেই বাজে পারফরম্যান্স ছিল বাংলাদেশের। দুই ম্যাচেই শুরুতেই উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে মুশফিক-সাব্বিরের ১১১ রানের জুটির সুবাদে ২০০’র গণ্ডি টপকাতে পারে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে মুশফিককে সঙ্গ দেন মিরাজ।

সেই বিশ্বকাপ থেকেই বাংলাদেশের বোলিং ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ। ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজুর রহমান উইকেট পেলেও ব্যয়বহুল বোলিং করছেন। ভারতে মিনি রঞ্জি ট্রফিতে তাসকিনের সাফল্য দেখে তাকে দলে ডাকেন নির্বাচকরা। কিন্তু প্রস্তুতি ম্যাচে তার বোলিং দেখে পরে তাকে একাদশেই রাখা হয়নি।

আজকের ম্যাচে একাদশে পরিবর্তন আসতে পারে। এনামুল হক বিজয় ও তাসকিন আহমেদ প্রথম দুই ম্যাচে একাদশে সুযোগ পাননি। সুতরাং, তারা শেষ ম্যাচে সুযোগ পেতে পারেন।

অন্যদিকে, এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কা নির্ভার থাকবে। তাদের একাদশে পরিবর্তন আনার সম্ভাবনা কম। উইনিং কম্বিনেশন নিয়ে মাঠে নামতে পারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *