স্যালুট

কবিতা সাহিত্য

মোহাম্মদ আব্দুল হক

স্যালুট জানাই বীর শহীদের পানে
রক্ত ঝরিয়ে এনে দিয়েছো স্বাধীনতা
পেয়েছি একটি পতাকা
আমাদের রাজনীতি আছে, আর
সীমানা পিলার ঘেরা একটি বাংলাদেশ।
১৯৭১ থেকে পথ হেঁটে হেঁটে আজো দেখি
নৈতিকতার উর্ধমুখী নয় নিম্নমুখী গতি
মুজিবের বাঙলায় মুজিব মরে নিজের ঘরে
জিয়াউর রহমানকে চট্টগ্রামে মারে তারই প্রহরী
নূর হোসেন গুলি খেয়ে মরে রাজপথে
আদুরী পড়ে থাকে ঢাকার ময়লার ভাগাড়ে
রাজন মার খেতে খেতে মরে সিলেটে
ধর্ষিতা হয় তনু কুমিল্লায় সারা বাংলাদেশে
বুয়েটে মরে মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার
সুনামগঞ্জে মরে ছোট্ট শিশু তুহিন
সীমান্তে ঝুলে থাকে ফেলানীর লাশ
কোথায় মরেনা?
কোথায় রক্ত ঝরেনা?
কোথায় রক্তে লাল হয়না বাংলাদেশ?
তবে কি দিয়েছে আমাদের স্বাধীনতা?
বলেন কি দিয়েছে আমাদের রাজনীতি?
আপনি ভালোটা পারেনও না,
লোভের কারণে ছাড়েনও না।
গুম খুন ধর্ষন ঘুষ দুর্নীতি আর লুটপাট
পেয়েছি বড়োরাস্তায় নেতার বড়ো গাড়িটা।
সবচেয়ে বড়ো পুরষ্কার পেয়েছি
পুলিশের মুখে গালি –
‘চুপ হারামজাদা চুপ কর’
শুধু থু থু ফেলি
আমি কি তারে চিৎকারে হারামজাদা বলি?
ঘুষখোর সবকটা বেজন্মা তাও বলিনা
আমি কেন বলতে যাবো
সেতো জানে চাকরী নিয়েছে কোন শপথে।
এসব কথা মনে হলে
মগজ বিগড়ে যায়
মাথাটা ঠিক রাখতে পারিনা
নীরবও থাকতে পারিনা
এদিকে বয়সটাও বেড়ে গেছে এখন
তবু হাত নিশপিশ করে
তাই আজ কলম হাতে নিয়েছি বারবার
কিন্তু আমার কলম লিখতে পারেনি কিছুই
তবে কেঁদেছে খুব বেশি
একটুও শব্দ করেনি
অশ্রু জমেনি তার অপলক চোখের কোণে।
হ্যাঁ তারপরও খুঁজি মুক্তিযোদ্ধা
স্যালুট
তবুও স্যালুট বীর বাঙালি বীর মুক্তিযোদ্ধা।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *