সিলেট চেম্বারের সাথে বিবিসিসিআই এর নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের মতবিনিময়

শীর্ষ খবর সার্ভিস ক্লাব সিলেট

০৮ জুলাই ২০১৯, সোমবার, সন্ধ্যা ০৭:৩০ ঘটিকায় চেম্বার বোর্ড রুমে দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র প্রশাসক ও প্রাক্তন নেতৃবৃন্দের সাথে বৃটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (বিবিসিসিআই) এর নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বশির আহমদ এর এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট চেম্বারের প্রশাসক আসাদ উদ্দিন আহমদ এর সভাপতিত্বে সভায় বিবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট বশির আহমদ বলেন, বৃটিশ বাংলাদেশ চেম্বার ও সিলেট চেম্বারের সম্পর্ক অত্যন্ত গভীর। সিলেট ও লন্ডনের মধ্যে ব্যবসায়ীক সম্পর্ক স্থাপনে দুইটি চেম্বার দীর্ঘদিন যাবৎ একত্রে কাজ করছে। তিনি বলেন, বৃটেনে অবস্থানরত প্রবাসীরা দেশে বিনিয়োগে আগ্রহী। তবে তাদেরকে পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা ও নিরাপত্তা প্রদান করতে হবে। তিনি বিনিয়োগকারীদের সুবিধার্থে প্রাতিষ্ঠানিক সেবার ক্ষেত্রে ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালু ও বিনিয়োগে বিরাজমান প্রতিবন্ধকতা সমূহ দূর করার দাবী জানান। তিনি সিলেট চেম্বারের বিভিন্ন কার্যক্রমের ভূঁয়সী প্রশংসা করে বলেন, সিলেটে প্রবাসী বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে সিলেট চেম্বার ও বৃটিশ বাংলাদেশ চেম্বারকে যৌথ উদ্যোগে কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন, পিপিপি’র আওতায় সিলেটে পর্যটন খাতের উন্নয়নের প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে, তবে এক্ষেত্রে সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা একান্ত প্রয়োজন। তিনি উল্লেখ করেন, সিলেট চেম্বার ও বৃটিশ বাংলাদেশ চেম্বার ইতোপূর্বে যৌথভাবে এনআরবি উইক আয়োজন করেছে, যা দেশে-বিদেশে দারুণভাবে প্রশংসিত হয়েছে। তিনি দ্বি-পাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়নে সিলেট চেম্বারের পক্ষ থেকে প্রতিনিধিদলকে বৃটেন সফরের আহবান জানান। তিনি ইউরোপে দক্ষ শ্রমিক রপ্তানীর লক্ষ্যে সিলেটে আন্তর্জাতিক মানের ট্রেনিং ইন্সটিটিউট স্থাপনের আহবান জানান।
সিলেট চেম্বার অব কমার্সের প্রশাসক আসাদ উদ্দিন আহমদ বৃটিশ-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় বশির আহমদ-কে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, বিবিসিসিআই প্রবাসীদেরকে দেশে বিনিয়োগে উদ্বুদ্ধকরণে যে ভূমিকা রাখছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, সিলেট প্রবাসী অধ্যূষিত অঞ্চল। এখানে প্রবাসী বিনিয়োগের মাধ্যমে শিল্পায়নের সম্ভাবনা প্রবল। বর্তমান সরকারও দেশে বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টিতে সক্ষম হয়েছেন এবং সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের কাজ শুরু করেছেন। তিনি সিলেটে নির্মাণাধীন হাইটেক পার্ক ও অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহবান জানান। এছাড়াও তিনি সিলেটে পর্যটন, শিক্ষা, চিকিৎসা ও আইটি খাতে বিনিয়োগ এবং নতুন প্রজন্মের প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগে উদ্বুদ্ধকরণে বিবিসিসিআই এর সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এফবিসিসিআই এর পরিচালক ও সিলেট চেম্বারের সাবেক সভাপতি খন্দকার সিপার আহমদ, সাবেক সভাপতি ও এফবিসিসিআই এর সাবেক পরিচালক সালাহ উদ্দিন আলী আহমদ, সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ লায়েছ উদ্দিন, সাবেক সহ সভাপতি মোঃ এমদাদ হোসেন, সাবেক পরিচালক মোঃ সাহিদুর রহমান, পিন্টু চক্রবর্তী, মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান (ভূট্টো), মোঃ আব্দুর রহমান (জামিল), হুমায়ুন আহমেদ, বিবিসিসিআই এর পরিচালক মোঃ আব্দুল মুমিন প্রমুখ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *