রাজনগরে লালবর্ণের দুর্গাপূজা পরিদর্শন

শীর্ষ খবর সার্ভিস ক্লাব সিলেট

উপমহাদেশের প্রখ্যাত শিল্পপতি বাংলাদেশের চা শিল্পের নিপুন কারিগর দানবীর ড. রাগীব আলী মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার ঐতিহাসিক জনপদ পাঁচগাঁও এর সর্ব্বানন্দ দাশের আরাধিত পূজা মন্দির পরিদর্শন করেছেন। গতকাল সোমবার পরিদর্শনে গিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে সকল সম্প্রদায়ের মানুষ স্বাচ্ছ্যন্দে যার যার ধর্ম পালন করতে পারে। এই ঐতিহাসিক স্থানে এসে আমি অভিভূত।
ভারত উপমহাদেশের ৪/৫টি লাল মূর্তির পূজা মন্ডপের মধ্যে পাঁচগাঁওয়ের পূঁজা মন্ডপ অন্যতম। ৩০৭ বছর পূর্ব থেকে সর্ব্বানন্দ দাশের আরাধিত পূজা যুগ যুগ ধরে তার বংশধররা পারিবারিক ভাবেই পালন করে আসছে। প্রতি বছরের ন্যায় পাঁচগাঁওয়ে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে লাল দেবীর পূজা উৎসবের আমেজে পালিত হচ্ছে। জাগ্রত দেবীর আশীর্বাদ নিতে দীর্ঘ পথ জুড়ে বিপুল সংখ্যক পুন্যার্থীর ভীড় জমে এই মন্ডপে। তাদের বিশ্বাস জাগ্রত অবস্থায় লাল বর্ণে হাজির হয়েছেন দেবী। সপ্তমী ও নবমীর দিনে কয়েক শ’ পাঠা ও মহিষ বলি দেয়া হয় এখানে। পূজাকে ঘিরে হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে উঠেছে আশপাশ এলাকা। দেশ-বিদেশের অসংখ্য মানুষ লাল বর্ণের দুর্গাকে এক নজর দেখতে এসেছেন।
পরিদর্শনকালে দানবীর ড. রাগীব আলীর সাথে উপস্থিত ছিলেন পাঁচগাঁওয়ের কৃতি সন্তান সিলেট জজকোর্টের এডভোকেট মন্টু কুমার দাশ, পিনাকী রঞ্জন দাশ, বন্ধু গোপাল দাশ, শিক্ষক কুবের চন্দ্র দেব, রাজনগর চা-বাগানের ম্যানেজার তোফায়েল আহমদ খান।
সমাজকল্যাণে নিবেদিত রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দানবীর ড. রাগীব আলী আরো বলেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এ উৎসব পরিণত হয়েছে সকল মানুষের মিলন মেলায়। এর মাধ্যমে অন্যায় আর অশুভ শক্তির বিনাশ ঘটে সকলের মধ্যে ভ্রাতৃত্ব ও মানবতাবোধ ছড়িয়ে পড়বে বলে তিনি প্রত্যাশা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *