যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান

শীর্ষ খবর সার্ভিস ক্লাব সিলেট

বৃহত্তর সিলেটের অরাজনৈতিক কল্যাণমূলক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন সিলেট কল্যাণ সংস্থা’র উদ্যোগে ও সিকস’র অঙ্গ সংগঠন সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থার সহযোগীতায় “জেগেছে যুব গড়বে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্যটি ২০১৯ হতে ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ পর্যন্ত ধারাবাহিক ভাবে জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় প্রতিপাদ্য হিসাবে নির্ধারণের দাবীতে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার বরাবরে (মাধ্যমঃ জেলা প্রশাসক, সিলেট) ৩০ জুলাই মঙ্গলবার বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আসলাম উদ্দিনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে জাতীয় যুব দিবস ২০১০-এ জাতীয় যুব পুরস্কার শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠক পদকপ্রাপ্ত উভয় সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বিভাগীয় কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ এহছানুল হক তাহেরের নেতৃত্বে স্মারকলিপি প্রদানকালে বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ সচেতন যুবদের মধ্য থেকে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থার বিভাগীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, সহ-সভাপতি মো. আছকির মিয়া, মো. মাহবুবুর রহমান, সিনিয়র সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বিজিত চন্দ, হেলাল আহমদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ইব্রাহিম, সৈয়দ রাসেল, মো. সজিব ভূইয়া, দপ্তর সম্পাদক এবাদ উল্লাহ, সহ দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ সাজ্জ্াদ খান, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক আলমগীর হোসাইন রিয়াদ, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক ইন্দ্রজ্যোতি পাল জীবন, সহ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক সৌরভ পাল, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক জয়ন্ত পাল, সহ তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো. সাহেদুজ্জামান, সহ সমাজসেবা সম্পাদক মো. শাহীন আহমদ, সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া হিমু ও সহ যোগাযোগ সম্পাদক মো. জমশের উদ্দিন।
স্মারকলিপির বিষয়বস্তুঃ জাতীয় যুব দিবস ২০১৮তে জাতীয় প্রতিপাদ্য হিসেবে “জেগেছে যুব গড়বে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্যটি জাতীয় প্রতিপাদ্য হিসাবে নির্ধারিত হলে উক্ত প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশে জাতীয় যুব দিবস ২০১৮ উদ্যাপন করা হয়। প্রতিপাদ্যটি বাংলাদেশের প্রতিটি যুবদের হৃদয়ে আন্দোলিত করে ও যুবরা স্পৃহা পায়। মহান স্বাধীনতা সহ বাংলাদেশ নির্মাণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ আজও বাংলার ঘরে ঘরে প্রতিনিয়ত বেজে উঠে। বাংলাদেশ বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধুর সর্বাঙ্গীন প্রচেষ্টাকে বাংলাদেশের মানুষ আজও শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে। বঙ্গবন্ধুর নাম সম্বলিত জাতীয় প্রতিপাদ্যটি যুবদের মনে নাড়া দেয়। তৃণমূল পর্যায়ে “জেগেছে যুব গড়বে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্যের জন্য সর্বস্তরের যুবদের মধ্যে বিশেষ আগ্রহ সৃষ্টি হয়। প্রতিপাদ্যের কারণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চিন্তা চেতনাকে অনুসরণ করে মহান মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় অনুপ্রাণিত হয়ে জাতীয় যুব দিবস উদ্যাপনে উৎসাহিত হয়ে উঠে বাংলাদেশের যুবসমাজ। জাতীয় যুব দিবস ২০১৮ উপলক্ষ্যে এই প্রতিপাদ্যটি নির্ধারিত হওয়ার পর থেকে যুব কার্যক্রম সহ বিভিন্ন ধরনের কারিগরী প্রশিক্ষণ গ্রহণে যুবদেরকে উদ্ধুদ্ধ করতে অসম্ভব উৎসাহ বৃদ্ধি করে। তাই “জেগেছে যুব গড়বে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” প্রতিপাদ্যটি পুনরায় ২০১৯ হতে ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ পর্যন্ত ধারাবাহিক ভাবে জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় প্রতিপাদ্য হিসাবে নির্ধারন করে জাতীয় যুব দিবস উদযাপনে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য আপনার প্রতি বিশেষভাবে অনুরোধ করছি। সর্বোপরি উক্ত প্রতিপাদ্যের কারণে বাংলাদেশের এক-তৃতীয়াংশ যুবদের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতি বিশেষ আগ্রহ ও চেতনা সৃষ্টি হয়। জাতীয় যুব দিবস ২০১৯ হতে ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ পর্যন্ত ধারাবাহিক ভাবে জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় প্রতিপাদ্য হিসাবে নির্ধারিত করে যুবদেরকে বঙ্গবন্ধুর চেতনার প্রতি ও বাংলাদেশের সমৃদ্ধিতে সম্পৃক্ত করতে উক্ত প্রতিপাদ্যটি নির্ধারন করা বিশেষ প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। পাশাপশি যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, সিলেট-কে প্রকৃতভাবে সর্বস্তরের যুবদের জন্য যুববান্ধব প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তোলা এবং দীর্ঘদিন থেকে সিলেটে অবস্থানরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিবর্তন করে যুবদের প্রতি পরিচ্ছন্ন মনমানসিকতায় অধিকারী সবল ও নির্লোভ ব্যক্তিদেরকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য আহ্বান করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *