মৃত্যুর ডাক

কবিতা সাহিত্য সিলেট

কবির মাহমুদ :
প্রাণীকুলকে পাকড়াও করে রেখেছে,
পুরো পৃথিবী জয় করে এসে মৃত্যুর কাছেই
আত্মসমর্পণ করতে দেখেছি!
শত বছর বাঁচার সাধ নিয়ে
সার্জারী করে রাখা সুন্দর দেহটা
মুহূর্তেই নিস্তেজ হয়ে মাটিতে গলে পচে
একাকার হতে দেখেছি!
মৃত্যু চিনে না, মুসলিম, হিন্দু, খৃষ্টান জাতির
ভেদাভেদ, বুঝে না ধনী, গরিব,ছোট,বড়!
মৃত্যু এক চিরন্তন সত্যের ডাক!
বিদায় বেদনার কয়েক ফোটা অশ্রুজলে
এই পৃথিবীর সব মায়ার বাঁধন ছিন্ন করে!
ডানামেলা নতুন স্বপ্নগুলোকে পরাজিত করে জীবনের পরিসমাপ্তি নিয়ে আসে!
ক্ষণিকের এই মায়াডোরে আলো আর
আঁধারের মেলায় জীবন নামক নাটকের
অভিনেতা কিংবা অভিনেত্রী মাত্র!
আস্তিক নাস্তিক যা-ই হোক
আর কোনো সত্য পৃথিবীতে থাকুক আর
না ই থাকুক, কেউ মানুক আর না-ই মানুক
মৃত্যু চিরন্তন সত্য!
ধরার উপর বিচরণ করা
সতেজ এই প্রাণের বুকেও একদিন
সবুজ ঘাস জন্ম নেবে!
ক্ষণস্থায়ী সিংহাসনে ক্ষণিকের পাহারাদার মাত্র!
মঙ্গলগ্রহের স্বপ্নগুলো সময়ের ব্যবধানে
মৃত্যুর আগমনে নির্মল!
বিশাল পৃথিবীতে বিচরণ করা
গোছালো স্মৃতিগুলো
নিস্তেজ দেহের সাথে সাদার মোড়কে
মুড়িয়ে সাড়ে তিন হাতে চাপা দিয়ে আসে!
কিংবা চিতার আগুনে পুড়িয়ে কয়েক ফোটা
বেদনার অশ্রুজলে জীবনের সকল সাধ
আহ্লাদকে ছাই করে দিয়ে যায়,
অনন্তকালের জন্যে!