মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে

শীর্ষ খবর সিলেট

মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বদ্ধপরিকর বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মহানগর ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধাভবতোষ রায় বর্মণ। তিনি ২৫ ফেব্রুয়ারি সিলেট জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে ওসমানী মেডিকেল উচ্চ বিদ্যালয়,সিলেটে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে চলচ্চিত্র প্রদর্শন ও কুইজ প্রতিযোগিতা এবং ‘এসো মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনি” অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। সিলেট বিভাগীয় তথ্য অফিসের উপপরিচালক জুলিয়া যেসমিন মিলি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-দৈনিক উত্তরপূর্ব পত্রিকার প্রধান সম্পাদক আজিজ আহমদ সেলিম, ও প্রধান শিক্ষক আফিয়া বেগম। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা তথ্য অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার উজ্জ্বল শীল। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার যুদ্ধকালীন স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন-জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ভাষণে উজ্জীবিত হয়ে মাতৃভূমিকে পাকিস্তানী শাসক গোষ্ঠীর কবল থেকে রক্ষা করার লক্ষ্যে জীবন বাজি রেখে যুদ্ধে অংশ গ্রহণ করে এদেশের সর্বস্তরের স্বাধীনতাকামী বাঙালীরা। দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে অনেক শহীদের আত্মদান এবং ৩০লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অবশেষে এলো কাঙ্খিত স্বাধীনতা এবং আমরা পেলাম একটি লাল সবুজের পতাকা। আর তখন থেকেই বাঙালী একটি স্বাধীন জাতিতে পরিণত হয়। তিনি সম্মুখ সমরে অংশগ্রহণ করে আমাদের মতো মুক্তিযোদ্ধা যারা প্রাণ নিয়ে ফিরে আসতে পেরেছেন তাদের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলার এ আয়োজন সত্যিই মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে দেয়ার সঠিক পন্থা। তিনি অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আয়োজক প্রতিষ্ঠানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন এ ধরনের অনুষ্ঠান কেবলমাত্র শহরাঞ্চলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই নয় বরং প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে আয়োজন করা প্রয়োজন। তবেই মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে পারবে সর্বস্তরের নতুন প্রজন্ম। অনুষ্ঠানের শেষার্ধে চলচ্চিত্র প্রদর্শন ও কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। কুইজ প্রতিযোগিতায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে বিজয়ী হন-ওসমানী মেডিকেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইফতিয়াজুল আলম, তাহিয়া জান্নাত, জান্নাতুল নাঈমা মৌন, অনিক চন্দ্র দাস, ও ফারজানা আক্তার জুঁই, ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ আহমদ ও বিশ্বজিৎ মোহন দাস এবং ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মাহজাবিন মাহমুদ খান, মাহবুবুর রহমান তাসিম ও আয়শা হুমায়রা। সিলেট জেলা তথ্য অফিসের ঘোষক মোঃ লেবাছ উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *