মানুষ বিরিয়ানি খাচ্ছে মাংসের বদলে কাঁঠাল দিয়ে

বিশ্ব শীর্ষ খবর

দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে, এ পর্যন্ত জনাপঞ্চাশেক আক্রান্ত হয়েছেন। ভাইরাসের চেয়ে দ্রুত ছড়াচ্ছে গুজব, নানা কুসংস্কারের চর্চা চলছে। সর্বশক্তি দিয়ে এইসব গুজবের বিরুদ্ধে লড়ছে দেশটির সরকার, চেষ্টা চলছে মানুষকে সচেতন করার। এনডিটিভি, আইএএনএস

[৩] সবচেয়ে বেশি লণ্ডভণ্ড লেগেছে, মাংস খাওয়া যাবে না, এই গুজবে। খাসী ও মুরগীর বিক্রি কমে যাচ্ছে প্রতিদিন। মানুষ মাংসের বিকল্প খুঁজছে, আর বিকল্প হিসেবে লুফে নিয়েছে কাঁঠাল।

[৪] কাঁঠালের দাম আকাশে চড়েছে, বেড়েছে ১২০ শতাংশেরও বেশি। প্রতি কেজি কাঁঠাল বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়, আর মুরগীর মাংসের কেজি ৮০ টাকা।

[৫] মানুষ বিরিয়ানি খাচ্ছে মাংসের বদলে কাঁঠাল দিয়ে। এটি খুব সঠিক বলেই মনে করেন পূর্ণিমা শ্রীবাস্তব। তিনি নন-ভেজ, তবুও করোনা-পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যসুরক্ষার জন্য খাসী, পাঁঠা কিংবা মুরগীর মাংস এড়িয়ে চলার পক্ষে তিনি।

[৬] পূর্ণিমা বলেন, ’কাঁঠালের বিরিয়ানি খেতেও ভালো। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, বাজারে এখন আর কাঁঠালই মিলছে না।’

[৭] মাঠে নেমেছে পোলট্রি ফার্ম এসোসিয়েশন। মুরগীর মাংস খেলে করোনাভাইরাস ছড়ায়, এমন ধারণা ভেঙ্গে দিতে গোরাকপুরে চিকেন মেলার আয়োজন করেছে। তিরিশ টাকায় প্লেটভর্তি চিকেন ডিশ বিক্রি হয়েছে মেলায়।

[৮] এসোসিয়েশনের প্রধান বিনীত সিং জানান, এক হাজার কেজি মুরগী রান্না করেছি। মানুষ আগ্রহের সঙ্গে পুরোটুকুই খেয়েছে।

[৯] তা সত্ত্বেও এই মেলা মানুষের ভীতি খুব একটা কাটাতে পারেনি। ডাক্তাররা বার বার বলছেন, মাংস খাওয়া পুরোপুরি নিরাপদ, মানুষ শুনছে কিন্তু মানছে না। ভারতের অনেক বাড়িতে মাছ-মাংস ঢুকছে না।

[১০] কর্তৃপক্ষের চিন্তার বিষয়, কাঁঠালের চাহিদা বেড়ে যাওয়া আর মাংসের বিক্রি কমে আসা, দুটো মিলে বাজারে একটা অস্থিরতা তৈরি করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *