এক সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে ২০ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত

বিশ্ব শীর্ষ খবর

গত এক সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে ২০ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি বলছে, মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণের এই বৃদ্ধিতে সবচেয়ে কম সময় লেগেছে।

করোনাভাইরাসের সাপ্তাহিক বিশ্লেষণে ডব্লিউএইচও’র প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রেইয়েসুস বলেন, টানা দ্বিতীয় সপ্তাহের মতো ইউরোপীয় অঞ্চলে সর্বোচ্চ নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এই অঞ্চলে গত সপ্তাহে ১৩ লাখের বেশি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। যা একই সময়ে বিশ্বজুড়ে মোট আক্রান্তের প্রায় ৪৬ শতাংশ।

জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক এই সংস্থা বলছে, করোনায় ইউরোপে মৃত্যুও বাড়ছে। আগের সপ্তাহের তুলনায় গত সপ্তাহে ইউরোপে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে প্রায় ৩৫ শতাংশ।

ডব্লিউএইচও বলছে, মৃত্যুর সংখ্যা ধারাবাহিকভাবে বৃদ্ধি পেলেও মৃত্যুর হার গত বসন্তে মহামারির প্রথম দিকের চেয়ে অপেক্ষাকৃত কম। করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ইউরোপের অন্তত ২১টি দেশে হাসপাতালে এবং নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রোগী ভর্তিও বেড়েছে। বর্তমানে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় ১৮ শতাংশকে হাসপাতালে ভর্তি এবং সাত শতাংশকে আইসিইউ অথবা শ্বাস-প্রশ্বাসের মেশিনের সহায়তা দেয়ার প্রয়োজন হচ্ছে।

বিশ্বজুড়ে গত তিন সপ্তাহে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের শীর্ষে রয়েছে ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, ব্রাজিল এবং যুক্তরাজ্য।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনাভাইরাসের উৎপত্তি হওয়ার পর দুই শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে। গত প্রায় দশ মাসে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ কোটি ৪৩ লাখের বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন ১১ লাখ ৭৩ হাজারের বেশি।

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের তাণ্ডব চললেও এখন পর্যন্ত এর কোনও প্রতিষেধক কিংবা ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, করোনার অন্তত ৯টি ভ্যাকসিন শেষ ধাপের পরীক্ষায় পৌঁছেছে। পরীক্ষায় সন্তোষজনক ফল মিললেও আগামী বছরের আগে ভ্যাকসিন সহজলভ্য নাও হতে পারে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

তবে ব্রিটেনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধপ্রস্তুতকারক জায়ান্ট কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকা বলছে, আগামী নভেম্বরের শুরুতেই তাদের তৈরি ভ্যাকসিনের প্রথম চালান আসতে পারে। এ জন্য লন্ডনের একটি হাসপাতালকে প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।