ইউকে বিসিসিআই-এর ডিরেক্টর চয়েসে এওয়ার্ড পেলো চ্যানেল এস

জাতীয় শীর্ষ খবর

বাংলাদেশ ক্যাটালিস্ট অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রি (ইউকে বিসিসিআই)-এর বিজনেস এন্ড এন্টারপ্রেনার এক্সেলেন্স এওয়ার্ড ২০১৯-এ ডিরেক্টর চয়েস এওয়ার্ড লাভ করেছে কমিউনিটির অন্যতম সেরা টেলিভিশন চ্যানেল এস। চ্যানেল এস তথা এর ফাউন্ডার মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মাহি ফেরদৌস জলিলের হাতে এই সম্মাননা তুলে দেয়া হয়।

রোববারের এই অনুষ্ঠানে চ্যানেল এসকে এওয়ার্ড প্রদানের প্রেজেন্টেশন তথ্য চিত্রে বলা হয়, ‘মাহি ফেরদৌস জলিল প্রায় ১৫ বছর আগে-বৃটিশ বাংলাদেশী কমিউনিটির ইস্যু ও বাংলাদেশকে যথার্থ ভাবে তুলে ধরার স্বপ্ন নিয়েই চ্যানেল এস’র যাত্রা শুরু করেন। আজ সেই টিভি ইউরোপের বাংলাদেশী কমিউনিটিকে আলাদা মর্যাদায় নিয়ে এসেছে। লন্ডনে প্রতিষ্ঠিত ইউকে ভিত্তিক টিভি চ্যানেল এস এদেশের এথনিক তথা বাংলাদেশী টিভির গুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা ও বৃহত্তর টিভি মাধ্যম হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।’

এওয়ার্ড গ্রহন করে মাহি জলিল তার বক্তৃতায় বলেন, চ্যানেল এস যেভাবে নানা চ্যালেঞ্জ ও বাস্তবতা মোকাবেলা করে আজকের উন্নতিতে পৌচেছে, আমার জীবনেও ছিলো নানা কঠিন দিন। কিন্তু এইসব জীবন বাস্তবতা আমাকে আরো বেশী শক্তি যুগিয়েছে, সাহসি ও দায়িত্বশীল করেছে।

তিনি আরো বলেন, যখন একটি টিভির মাধ্যমে কমিউনিটিকে যথার্থ সেবা দেয়া ও ইস্যু গুলোকে তুলে ধরার স্বপ্ন দেখেছিলাম, তখন অনেকে স্বপ্ন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। আজ সেইসব জায়গা থেকেই সমর্থন ও সম্মাননা মিলছে, যা খুশীর বিষয়। চ্যানেল এস হচ্ছে বৃটেনে জন্ম নেয়া টিভি, কমিউনিটির মধ্য থেকে প্রতিষ্ঠিত কমিউনিটিরই টিভি। এদেশে খুব কম সংখ্যক এথনিক টিভি আছে, যাদের এতো বিশাল নিজস্ব ভবন সেটাপ রয়েছে, সেই সূত্রে আজকের অবস্থানের জন্য সব পর্যায় থেকে আমরা সহযোগিতা পেয়েছি।

লন্ডনের পার্ক লেইন হিলটনে ইউকেবিসিসিআই-এর এই অনন্য আয়োজন। বিজনেস এন্ড এন্টারপ্রেনারশিপের নানা সেক্টরে সফলতার অর্জনকারীদেও এতে ১২ টি ক্যাটাগরিতে এওয়ার্ড প্রদান। আইটিভির ব্রডকাস্টার শামীনা আলী খানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা রাখেন ইউকেবিসিসিআই এর চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ ওবিই ও প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ রশিদ এমবিই। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন কনসারভেটিভ পার্টির চেয়ার জেইমস ক্লেবারলি এমপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *